ক্যান্সার রোগাক্রান্ত আমার নতুন প্রকাশিত বই “জলজ্যোৎস্নার সয়ম্বরা”

জলজ্যোৎস্না একালের এক সংগ্রামী জীবনতারুণ্যে ভরা অনার্স পড়ুয়া দরিদ্র হিন্দু কলেজ শিক্ষার্থী! যার জন্ম আর বসবাস এমন এক দ্বীপগাঁয়ে, যেখানে শিক্ষা আর বিদ্যুতের আলো কিছুই পৌঁছেনি অদ্যাবধি। কিন্তু লেখকের মা ও লেখকের সহযোগিতায় অনার্সে ভর্তি হয়ে নিয়মিত কলেজে আসা-যাওয়া করে চর থেকে দেশীয় জলযানে। একসময় প্রাগৈতিহাসিক সয়ম্বরা বিয়ের কথা জেনে, জলজ্যোৎস্নার ইচ্ছে প্রবলতর হয় সয়ম্বরা সভার। লেখক ও তার বন্ধুদের সহযোগিতায় অন্ধকারাচ্ছন্ন জলজ্যোৎস্নার জলদাস গাঁয়ে এক শীতের রাতে আয়োজন করা হয় “জলজ্যোৎস্নার সয়ম্বরা” সভার। একুশ শতকের এমন অভিনব অনুষ্ঠানে বিয়ের সাজে ফুলমালা হাতে কনে জলজ্যোৎস্নাকে দেখতে উপস্থিত হয় হাজারো মানুষ। অন্ধরাতের আলোকোজ্জ্বল এমন আনন্দঘন অনুষ্ঠান আকস্মিক আক্রান্ত হয়, ধর্মান্ধ জঙ্গী কতিপয় সন্ত্রাসীদের দ্বারা। তাদের নিক্ষেপিত আগুন আর গানপাউডারে জ্বলতে থাকে জলজ্যোৎস্না আর লেখকসহ তার আয়োজক বন্ধুরা! শেষতক জলজ্যোৎস্না কি পুড়ে মারা যায় সে আগুনে? নাকি দ্রোহি জলজ্যোৎস্না আগুনের দহনে উজ্জ্বলতর স্বর্ণাভ হয়ে জ্বলতে থাকে রূপোলী ইলশে রঙা ভরা চাঁদজ্যোৎস্না হয়ে এ আলোকিত বিশ্বে! হ্যাঁ, আধুনিক জীবনদ্রোহি এক তরুণীর এ কাব্যিক গল্পের নামই হচ্ছে “জলজ্যোৎস্নার সয়ম্বরা”!
:
করোনার মন্দাবাজার আর আমার ক্যান্সারের এ দু:সময়ে ঢাকার রিদম প্রকাশনা সংস্থা জলজ্যোৎস্নাসহ ৩৬-টি নির্বাচিত গল্প নিয়ে প্রকাশ করেছে ২২৩ পৃষ্ঠার জীবনঘন এ গল্প সংকলনটি। রিদম প্রকাশনার মালিক গফুর ভাই বলেছেন, “যদি বইটি বিক্রি হয়, তবে তিনি প্রকাশ করবেন, তার ২য় গল্প সংকলনের আরেকটি গল্পসম্ভার!
:
তাই আমার সকল ফেসবুক বন্ধুদের অনুরোধ করবো, চমৎকার সব গল্প নিয়ে প্রকাশিত “জলজ্যোৎস্নার সয়ম্বরা” বইটি কিনুন আপনারা, হয় সরাসরি প্রকাশক থেকে কিংবা রকমারি থেকে। প্রবাসী পাঠক বন্ধুরাও বইটি পেতে পারেন বিশ্বের যে কোন স্থানে। বইটি বিক্রি হলে প্রকাশকের আগ্রহ ছাড়াও আর্থিক একটা অংশ পাবো আমি রয়েলটি হিসেবে , যা আমার ক্যান্সার চিকিৎসায় খুবই সহায়ক হবে। কারণ বন্ধুরা অনেকেই জানেন, ১২.৪.২০২০ তারিখ আমি উপপরিচালক হিসেবে PRL-এ এবং ১২.৪.২০২১ অবসরে গেলেও, আমলাতান্ত্রিক জটিলতায় এখনো আমার পেনশন, এমনকি আমার প্রফিডেন্ট ফান্ডের টাকাও তুলতে পারিনি। অথচ এককালের সচ্ছল আমি ক্যান্সার চিকিৎসা করাতে হিমসিম খাচ্ছি এখন প্রতিনিয়ত! যদিও সরকারের কাছে আমার পাওনা অন্তত ৫০/৬০ লাখ টাকা। মরণাপন্ন রোগীর ফাইল ঝুলে আছে বাংলাদেশের আমলাতন্ত্র নামক জটিল জালে! সুতরাং আমার এ অকাল দু:সময়ে আমার বন্ধুদের নৈতিক দায়িত্ব হয়ে দাড়িয়েছে বইটি কেনার!
:
বইটি যেভাবে পেতে পারেন আপনারা :
—————————-
১। সরাসরি প্রকাশকের বিকাশ নম্বর 01632-855381, নগদ 01676-533026 নম্বরে (প্রকাশকের whatsapp # 01676-533026)। অত্যন্ত ভাল বাঁধাই ও উন্নত কাগজে ছাপা বড় বই বিধায় রয়ালিটিসহ প্রকাশক দাম রেখেছেন ৪৫০ টাকা। তবে তিনি ৩৫% ছাড় দেবেন বলেছেন। তাতে ৩০০ টাকার মত দাম আসে। কুরিয়ারে আরো ৫০ টাকা ধরলে ৩৫০-টাকা রিদম প্রকাশনীর উপর্যুক্ত ব্যক্তিগত নাম্বারে বিকাশ করলে ঘরে বসেই বইটি পাবেন।
:
২। রকমারি থেকেও বইটি কিনতে পারবেন। রকমারি বইটির দাম রেখেছে ১৫% কমিশন বাদে ৩৮৩ টাকা। সাথে হয়তো পাঠানোর খরচ যুক্ত হবে। রকমারির লিংক : https://www.rokomari.com/book/220279/jolojosnar-shoymbora
:
৩। কলকাতার পাঠকরা বইটি পেতে পারেন Dey Book Store, 13 Bankim Chatterjee Street, Kolkata-700073 Tel : 983079177, Office : 033-64552245, কলকাতা এখনো পাঠানো হয়নি। ওখানের পাঠকরা কিনতে চাইলে প্রকাশক তড়িৎ বই পাঠানোর ব্যবস্থা করবেন।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *